Electric Fan – মাত্র 900 টাকায় কম কারেন্ট বিল আসার ফ্যান তৈরী পশ্চিমবঙ্গে। সারা মাসে 10 টাকা কারেন্ট বিল।

BLDC Electric Fan – কীভাবে কিনবেন এই ফ্যান জানুন।

ভারতবর্ষ গ্রীষ্ম প্রধান দেশ। এই দেশে নিম্নবিত্ত থেকে উচ্চবিত্ত সব পরিবারেই সিলিং ফ্যান (BLDC Electric Fan) দেখা যায়। গরমের হাত থেকে বাঁচতে এই দেশের বেশিরভাগ মানুষ ভরসা করেন পাখার ওপর। তা সে সিলিং ফ্যান হোক, টেবিল ফ্যান হোক বা হাত পাখা।

Advertisement

স্বাধীনতার ৭৭ তম বর্ষে পৌঁছালেও আজও এই দেশে বহু মানুষ দরিদ্র সীমার নিচে বসবাস করছেন। ফলে এসি কেনার কথা তারা ভাবতেও পারেন না। তাই গরমের দিনে পাখাই একমাত্র ভরসা। খেয়াল করলে দেখবেন শীতকালের তুলনায় গরম কালে কমবেশি সকলেরই বিদ্যুতের লম্বা চওড়া বিল আসে।

Advertisement

গরমের কারণে পাখা তো আমরা চালাই। কিন্তু বিল আসার পর মাথায় হাত পড়ে যায়। গরমকালে বেশিরভাগ বাড়িতেই ২৪ ঘন্টা ফ্যান (Electric Fan) চলে। আর এই কারণে বিল তুলনামূলক বেশি আসে। গরমকালে চেষ্টা করেও বিয়ের পরিমাণ কমানো যায় না। এরকম পরিস্থিতিতে মানুষ চায় কিভাবে ইলেকট্রিক বিল কমানো যায়? আজকের প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের এই প্রশ্নের উত্তরটাই দেব।

রাজ্যে আবারও ছুটি ঘোষণা, বন্ধ স্কুল, কলেজ সহ সমস্থ সরকারি প্রতিষ্ঠান।

ভারতবর্ষ গ্রীষ্ম প্রধান দেশ হওয়ার কারণে, এখানকার প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই ২৪ ঘন্টা Electric Fan চলে। আর এই কারণে মাসের শেষে বাড়িতে চলে আসে লম্বা চওড়া। এবার এই ইলেকট্রিক বিলের পরিমাণ কমতে চলেছে। বাজারে চলে এসেছে এক বিশেষ ধরনের ইলেকট্রিক ফ্যান। এই ফ্যান চালালেও বাড়তি বিল আসবে না। আপনারা জানলে অবাক হবেন এই ফ্যান (Electric Fan) তৈরি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের।

বিশ্ব উষ্ণায়নের কারণে প্রতিবছর তাপমাত্রা রেকর্ড পাড় করছে। অস্বস্তিকর গরমের কারণে নাভিশ্বাস ওঠার জোগাড় সাধারণ মানুষের। ইতিমধ্যে অনেকেই এসি কিনে ফেলেছেন। কিন্তু সকালের পক্ষে এসি কেনার সমর্থ্য বা এসির লম্বা-চওড়া বিল দেওয়ার সামর্থ্য নেই।

এবার সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখেই হুগলিতে আনা হয়েছে এক ধরনের বিশেষ ইলেকট্রিক ফ্যান। এই ফ্যান কিনে ফেললে আর বিলের চিন্তা করতে হবে না। যতক্ষণ খুশি চালান, বিল আসবে অল্প। এটি হুগলির পোলবা একটি সংস্থার কারখানায় তৈরি করা হয়েছে। আগামী দিনে নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য এই ফ্যান হবে ভরসার কাঁধ। গত বৃহস্পতিবার রাজ্যের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস এই পাখার (Electric Fan) উদ্বোধন করেছেন। এদিন উপস্থিত ছিলেন চুঁচুড়ার বিধায়ক অসিত মজুমদার।

এই পাখার বিশেষত্ব হল যতক্ষণ খুশি চালিয়ে রাখুন, বিল খুব একটা বেশি আসবে না। এই ফ্যান তৈরি করা হয়েছে BLDC প্রযুক্তিতে। BLDC -এর পূর্ণ রূপ হল ব্রাসলেস ডিরেক্ট কারেন্ট মোটর। এই প্রযুক্তিতে তৈরি হওয়া ইলেকট্রিক ফ্যানের মোটর বিদ্যুতের উৎস হিসেবে ডাইরেক্ট কারেন্ট ব্যবহার করবে। এই নিয়ে কথা বলেছেন সংস্থার অন্যতম ডিরেক্টর সম্পূর্ণা ঘোষ। তিনি জানিয়েছেন, এই পাখা অনেক কম বিদ্যুৎ টানবে। ফলে বিদ্যুতের বিল অনেকটাই কম আসবে। এই ৫ স্টার রেটিং ফ্যানের দাম মাত্র ৯৯৯ টাকা।

2000 টাকার পর আবার ভারতীয় মুদ্রা বাতিল। আর বাজারে চলবে না, রিজার্ভ ব্যাংকের ঘোষণা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button