Madhyamik – মাধ্যমিক পরিক্ষার্থী পিছু স্কুল পাবে 10 টাকা, আভিনব সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

Madhyamik – এই বছর থেকে চালু হবে নতুন এই নিয়ম। জানুন বিস্তারিত।

মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক (Madhyamik) এই দুটি জীবনের প্রথম বড়ো পরীক্ষা। যে পরীক্ষা দুটির জন্য ছোট থেকে অনেক স্বপ্ন ও বুক ধুকপুক করে। রাত জেগে পড়া, টেনশন অনেক কিছুই কাজ করে। তবু এখনো অনেক গ্রাম অঞ্চলে ছেলে মেয়েদের ক্লাস এইট অবধি পড়িয়ে নানা কাজে ঢুকিয়ে দিচ্ছে। কারণ ঘরে খেটে খাওয়া মানুষের অভাব। অথচ অনেক লোক। তাই ছোট ছোট ছেলে মেয়ে স্কুল ছেড়ে দিয়ে কাজে লেগে যায় দু মুঠো খাবারের জন্য।

Advertisement

এবার সরকার থেকে সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রত্যেক ছাত্র ছাত্রীকে মাধ্যমিক (Madhyamik) পরীক্ষা দিলে তাদের স্কুলে সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেক স্টুডেন্ট পিছু ১০ টাকা করে দেওয়া হবে। এবং সেই টাকাটা মাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর সরকার প্রতি স্কুলে সেই বরাদ্দ টাকা পাঠিয়ে দেবে। যাতে স্কুল গুলি পরীক্ষার্থী দের জন্য পানীয় জল থেকে শুরু করে বিভিন্ন দিক সুষ্ঠ ভাবে পরিচালনা করতে পারে। পরীক্ষার্থী দের যেন কোনো রকম অসুবিধায় পড়তে না হয়।

Advertisement

প্যান কার্ড নিয়ে বড় স্বস্তির কথা শোনালো সরকার, বাতিল হচ্ছে না কোনো পুরনো কার্ড।

মূলত এই সিদ্ধান্ত নেবার কারণ গ্রামাঞ্চলে খাবারের জন্য রোজগারে নেমে যায় ছোট ছোট শিশু গুলো। তাদের এখন খেলার পড়ার সময়। সেই দু মুঠো খাবারের জন্য লোকের কথা শুনে কাজ করে। তাদের স্কুল মুখী করতে এর আগে সরকার মিড ডে মিলের ব্যাবস্থা করে। কারণ খালি পেটে বিদ্যা হয়না। আর বাচ্চাদের স্কুলে আসার জন্য অনুপ্রাণিত করতে মিড ডে মিলের ব্যাবস্থা চালু হয়। দেখা যায় এরপর স্কুল গুলিতে অনেক ছাত্র ছাত্রী ভর্তি হয়েছে। এছাড়া সরকার থেকে সাইকেল দেওয়া হয় যাতে স্কুলে আসতে অসুবিধা না হয়। এবার আরেকটি নতুন প্রকল্প নিয়ে আসলো রাজ্যের মধ্য শিক্ষা পর্ষদ।

তেমনি যারা ক্লাস এইট অবধি পড়ে স্কুল গণ্ডিকে জীবন থেকে মুছে ফেলে তাদের মাধ্যমিক (Madhyamik) দেওয়াতে অনুপ্রাণিত করতে সরকারের এহেন পদক্ষেপ। মাথা পিছু ১০ টাকা করে দিয়ে তাদের স্কুলমুখো করতে অনন্ত প্রচেষ্টা চালাবেন রাজ্যের মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

শুক্রবার এমনই এক সিদ্ধান্তে উপনীত হলো রাজ্য। রাজ্যের কোনো পড়ুয়া যেন এইট পাশ না থাকে সেই দিকটাও নজর দিচ্ছেন রাজ্য। মাধ্যমিক (Madhyamik) পরীক্ষার্থীদের মাথা পিছু ১০ টাকা করে মোট স্টুডেন্ট বাবদ টাকাটা স্কুলের তহবিলে জমা হবে। পরীক্ষাশেষ হলে পুরো টাকাটা স্কুল পাবে বলে জানিয়েছে পর্ষদ। আগামী ২০২৪ সাল থেকেই এই প্রকল্প চালু হবে বলে জানা যাচ্ছে।

নিয়ম না মানায় জনপ্রিয় 5 টি সরকারি ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিল। টাকা তোলা যাবে না। সমস্যায় কোটি গ্রাহক।

তবে অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তির মুখে শোনা যাচ্ছে এই মূল্যবৃদ্ধির বাজারে মাত্র ১০ টাকায় কি হয়। তাতে বিশেষ ব্যাবস্থা ও সুষ্ঠ পরিকাঠামো গড়ে তোলা সম্ভব নয়। অন্যদিকে কিছু জন এই প্রকল্পের সুখ্যাতি করেছে। এখন দেখা যাক কতদূর সফল হয় এই প্রকল্পের ব্যাবস্থা।
Written by Shampa Debnath

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button