Lakshmir Bhandar – লক্ষ্মীর ভান্ডারে এবার থেকে 3000/- পাবেন সমস্ত মা বোনেরা। ভোটের আগে মুখ্যমন্ত্রীর মাস্টারস্ট্রোক।

রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের মধ্যে সবচেয়ে যে প্রকল্প সারা বাংলায় বেশ জনপ্রিয় সেটা হলো Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভান্ডার। এই প্রকল্প হওয়ায় ভীষণ ভাবে উপকৃত হয়েছে বাংলার মহিলারা। এই প্রকল্প শুরু হওয়ার সময় থেকে এতদিন পর্যন্ত জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলারা প্রতি মাসে ৫০০ ও এস সি, এস টি ক্যাটাগরির মহিলারা ১০০০ টাকা করে পেতেন। যদিও এই এপ্রিল মাস থেকে সেই টাকা দ্বিগুণ হয়েছে। এখন থেকে জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলারা ১০০০ ও এস সি, এস টি ক্যাটাগরির মহিলারা ১২০০ টাকা করে পাবেন।

Advertisement

Get 3000RS Per Month on Lakshmir Bhandar Scheme

অনেক দরিদ্র বা নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের মহিলারা রয়েছেন যাদের নিজেদের হাতে কোনো অর্থ থাকেনা যেহেতু তারা উপার্জন করেনা। লক্ষ্মীর ভান্ডারের এই মাসিক ভাতা পেয়ে এইসমস্ত মহিলাদের একটা অর্থনীতিক জোর তারা পাচ্ছেন। অনেকে প্রতিমাসের টাকা জমিয়ে ছোট খাটো ব্যাবসা শুরু করেছেন।

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রীর এই প্রকল্প শুরু করার কারণ ছিল বাংলার মহিলাদের আত্মনির্ভরশীল করে তোলা। তবে এই Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে এবার আরো বড়ো খবর শোনা যাচ্ছে। Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা আরও নাকি বৃদ্ধি করা হবে।

প্রত্যেকে মাসে ৩০০০ টাকা করে পাবেন এমটাই আশ্বাস দিলেন বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্বের সাংসদ তথা অন্যতম দাপুটে নেতা শুভেন্দু অধিকারী। কি ভাবছেন Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভান্ডার তো রাজ্য সরকারের প্রকল্প। এখানে বিজেপি সরকার টাকা দেবে বলছে এর অর্থ কি? আসুন জেনে নিন বিস্তারিত।

২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে বাংলার কম আয়সম্পন্না ও বেরোজগার মহিলাদের ন্যূনতম আয়ের ব্যবস্থা করে দিতে Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই প্রকল্পের জনপ্রিয়তা খুবই হওয়ায় বাইরের রাজ্য গুলো এই প্রকল্পের অনুসরণে আইডল প্রকল্প তৈরি করেছে তাদের রাজ্যে

প্রতিমাসে 1500 টাকা পেতে এখনি আবেদন করুন নতুন এই প্রকল্পে। ছেলে মেয়ে সবাই পাবে।

সম্প্রতি নদীয়ার রানাঘাটে নির্বাচনী প্রচারে এসে নন্দীগ্রামের সাংসদ শুভেন্দু অধিকারী ঘোষণা করেন, রাজ্য সরকার Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভান্ডার দিলেও বিজেপি সরকার বিভিন্ন রাজ্যে লাডলী বেহেনা যোজনা (Ladli Behen Yojana), অন্নপূর্ণা যোজনার (Annapurna Yojana) মতো বিভিন্ন জনকল্যাণমুখী প্রকল্প মহিলাদের জন্য চালু করেছে।

Lakshmir Bhandar Scheme বা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প

আসাম সরকার অন্নপূর্ণা যোজনায় (Annapurna Yojana) সে রাজ্যের মহিলাদের মাসে ২৫০০ টাকা করে দিচ্ছে। আর যদি পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসে তাহলে বাংলার মহিলাদের ৩০০০ টাকা করে দেওয়া হবে। ভরা জনসভায় শুভেন্দু অধিকারী জোর গলায় এমনটাই বললেন এবং আশ্বাস দিলেন।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা সবার একাউন্টে ঢুকছে। আপনি না পেলে কি করবেন?

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি সরকার আসলে বাংলার মহিলাদের আরোও অর্থনৈতিক মান উন্নয়ন ঘটত। এখন দেখা যাক আসন্ন লোকসভা ভোটে জয়ীর মুকুট কোন দলের মাথায় ওঠে! বিজেপি আসন পেলে বাংলার মহিলাদের আরও অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটবে কিনা সেটা সময়ের অপেক্ষা।
Written by Shampa Debnath.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button