2023 সালের উচ্চমাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রের নতুন নিয়ম ঘোষণা করা হল সংসদের তরফে।

বিদ্যালয় জীবনের সবচেয়ে কঠিন ও শেষ পরীক্ষা হচ্ছে উচ্চমাধ্যমিক। এই পরীক্ষার ফলের ওপরেই নির্ভর করে আগামী দিনে ছাত্র – ছাত্রীরা কোন বিষয়ের ওপরে দক্ষতার সঙ্গে এগিয়ে যাবে। ২০২৩ সালের উচ্চমাধ্যমিক কোন সমস্যা ছাড়া সম্পন্ন করার উদ্দেশ্যে সংসদের তরফে একাধিক নির্দেশিকা আগেই প্রকাশিত করা হয়েছে। এই নতুন বিজ্ঞপ্তিতে পরীক্ষার প্রশ্ন – পত্রর পরিবর্তন করা হবে জানানো হয়েছে।

Advertisement

উচ্চমাধ্যমিকের কী কী নিয়ম পাল্টানো হল জেনে নিন।

WBCHSE – West Bengal Council Of Higher Secondary Education অর্থাৎ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের পক্ষে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে পরীক্ষার্থীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে এই নতুন প্রশ্ন – পত্র নিয়ে আসা হয়েছে। এরই সঙ্গে উত্তর পত্রের পরিবর্তন করা হবে। বিগত বছর গুলির পরিক্ষাতে প্রশ্ন – পত্র দুই ভাগে বিভক্ত ছিল প্রথম অংশ ও দ্বিতীয় অংশ।

Advertisement

উচ্চ মাধ্যামিক শিক্ষা সংসদ এর তরফে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। প্রথম অংশে পরীক্ষার্থীদের বড় প্রশ্নের উত্তর লিখতে হত, দ্বিতীয় অংশে Mcq – Multiple Choice Question ও Saq – Self – Assessment Questionnarie লিখে প্রথম অংশের সাথে যুক্ত করে দিতে হত। কিন্তু এই পদ্ধতি ২০২৩ সাল থেকে পাল্টাতে চলেছে।

Reliance Foundation Scholarship দেশের সকল পড়ুয়াদের দিচ্ছে লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্কলারশিপ।

এখন থেকে নতুন প্রশ্নে প্রথম তিন পাতা জুড়ে MCQ – Multiple Choice Questions ও তার সঙ্গে ছোট প্রশ্ন সহ প্রথমের দিকে ৩০ টির বেশি উত্তর লেখার জায়গা থাকবে। এছাড়াও দ্বিতীয় ও তৃতীয় পৃষ্ঠায় Saq – Self – Assessment Questionnarie এর উত্তর লেখার জায়গা থাকবে। Self – Assessment Questionnarie এর ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীদের ২ – ৩ লাইনে উত্তর লিখতে হবে।

চতুর্থ পৃষ্ঠা থেকে বাকি সকল প্রশ্নের উত্তর লিখতে হবে। উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তরফে এই নতুন ধরণের প্রশ্ন – পত্রের প্রাথমিক বর্ণনা দেওয়া হয়েছে। এই পরিবর্তন নিয়ে আশাবাদী পরীক্ষার্থী সহ সকল শিক্ষকেরা। তাদের বক্তব্য অনেক সময় ঠিক করে প্রথম ও দ্বিতীয় ভাগের প্রশ্ন সংযুক্ত না করা হলে উত্তর পত্র হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকত। এখন থেকে সেটার ঝুকি কমবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য এর মত অনুসারে এই নতুন নিয়মের ফলে উপকৃত হতে চলেছে ছাত্র – ছাত্রী সহ পরিক্ষকেরা। আগে দুই ভাগে প্রশ্ন বিভক্ত থাকার জন্য যেই সকল শিক্ষকেরা খাতা দেখেন তাদের অসুবিধায় সম্মুখীন হতে হত। আবার অনেক সময় এক জায়গা থেকে অন্য জায়গাতে উত্তরপত্র নিয়ে যেতে গিয়ে পিন বা সুতো ছিঁড়ে গিয়ে উত্তরপত্র হারিয়ে যেত।

30 দিনের মধ্যে এই 3 টি স্কলারশিপ এ আবেদন করলেই নিশ্চিত টাকা পাবেন।


এর ফলে পরীক্ষার্থীদের নম্বর কমে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল। এই নতুন প্রশ্ন – পত্র আসার পর এই সমস্যা কমবে বলে মনে করছেন অনেক বিশেষজ্ঞরা। এই নিয়ে আপনাদের মত নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। পছন্দ হলে শেয়ার ও সাবসক্রাইব করুন। সঙ্গে থাকুন এই ধরণের আরও খবরের আপডেট পাওয়ার জন্য।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button