Lakshmir Bhandar – লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পেয়েছেন? টাকা না পেলে কি করবেন?

রাজ্য সরকার বাংলার জনসাধারণের জন্য বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কর্মসূচি শুরু করেছেন। যার মধ্যে মহিলাদের জন্য এই Lakshmir Bhandar তথা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পটি সারা রাজ্য জুড়ে বেশ সাড়া ফেলেছে। রাজ্যের মহিলাদের জন্য এই প্রকল্পে প্রতিমাসে ৫০০ টাকা করে দেওয়া হতো জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলাদের। এছাড়া এসসি, এসটি দের জন্য ১০০০ টাকা করে দেওয়া হতো। কিছুদিন আগেই নতুন বাজেট পেশ করার সময় এই টাকার পরিমান বৃদ্ধি করা হয়।

Advertisement

Lakshmir Bhandar Payment Update & Status Check

আসন্ন লোকসভার আগেই টাকার পরিমাণ বৃদ্ধি করা নিয়ে বিরোধী দলের নেতারা এই টাকা বৃদ্ধিকে লোকসভা ভোটে জেতার একটি কৌশল বলে মনে করছেন। তাদের মনে হয় লোকসভা নির্বাচনে জেতার একটি মাস্টার্স স্ট্রোক হলো Lakshmir Bhandar তথা লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা বাড়ানো। এমনকি ২০২১ লোকসভা নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রীর জেতার বড়ো হাতিয়ার ছিল এই লক্ষ্মীর ভান্ডার।

Advertisement

১লা এপ্রিল থেকে নতুন টাকার পরিমাণে টাকা ঢোকার কথা ছিল। যেখানে জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলাদের জন্য ১০০০ টাকা করে দেয়া হবে আর এস সি ও এস টি ক্যাটাগরির মহিলারা ১২০০ টাকা করে পাবেন। এই টাকা বৃদ্ধির খবরে রীতিমত খুশি ছিলেন Lakshmir Bhandar তথা লক্ষ্মীর ভান্ডারে গ্রাহকরা। কিন্ত অনেক গ্রাহক অভিযোগ করেছেন ১ লা এপ্রিল তাদের একাউন্টে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা ঢোকেনি।

তা নিয়ে রীতিমত শোরগোল শুরু হয়েছে। কারণ এই Lakshmir Bhandar তথা লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা অনেকটাই আর্থিক সহায়তা দেয় বাংলার মহিলাদের। অনেকেই এই টাকা জমিয়ে ছোট খাটো ব্যাবসা দিয়েছেন। মহিলারা স্বনির্ভর হয়েছেন। অনেকের এই টাকায় মাসিক খরচের অনেকটাই মেটান তাই কোন মাসের টাকা বাদ গেলে সমস্যায় পড়তে হয়।

সরকারের নতুন প্রকল্প লাখপতি দিদি যোজনায় আবেদন করলেই পাবেন একাধিক বিশেষ সুবিধা।

তবে টাকা না ঢোকা নিয়ে কোনো চিন্তার কারণ নেই। কারণ ১লা এপ্রিল আর্থিক বছরের শুরুতে ব্যাংক বন্ধ থাকে তাই কোনো আদানপ্রদান হয়না। সেজন্য ১লা এপ্রিল কোনো গ্রাহকের একাউন্টে টাকা ঢোকেনি। ২রা এপ্রিল থেকে পুনরায় ব্যাংকের কাজ শুরু হয়েছে। প্রথম দিন অর্থাৎ ১লা এপ্রিল প্রতিবছর ব্যাংক বন্ধ থাকে।

LIC Kanyadan Policy - এলআইসি কন্যাদান পলিসি

তাই হয় না কোনও লেনদেন। সেই জন্য ১লা এপ্রিল কারোর অ্যাকাউন্টেই ঢোকেনি Lakshmir Bhandar তথা লক্ষীর ভান্ডারের টাকা। মঙ্গলবার থেকে স্বাভাবিক নিয়মে শুরু হয়েছে ব্যাংকের কাজ। ফলে এবার থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডার গ্রাহকরা তাদের একাউন্টে টাকা পেয়ে যাবেন। সবার একদিন না ঢুকলেও কয়েকদিনের মধ্যেই সবার একাউন্টে টাকা ঢুকে যাবে।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে বড় চমক মাসের শুরুতেই। মা বোনেদের জন্য খুশির খবর।

এই নিয়ে কোনো চিন্তার কারণ নেই। নিশ্চিন্তে থাকুন। এবারের লোকসভা নির্বাচনেও মুখ্যমন্ত্রীর জেতার বড়ো হাতিয়ার এই মহিলা ভোটার। Lakshmir Bhandar তথা লক্ষ্মীর ভান্ডার যেভাবে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে তাতে এমনটাই প্রত্যাশা করা যায়। এমন গুরুত্তপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে এই পেজ ফলো করুন।
Written by Shampa Debnath.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button