DA – লোকসভা ভোটের আগেই DA নিয়ে নতুন বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর! আদৌ কি পাবে সরকারি কর্মীরা কেন্দ্রীয় হারে ডিএ।

সরকারি কর্মচারীদের DA তথা মহার্ঘ্য ভাতা বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে মিছিল মিটিং থেকে শুরু করে কবেই সেটা আন্দোলনের নাম নিয়েছে। এই নিয়ে মামলাও চলছে সুপ্রিমকোর্টে। যদিও কেন্দ্রীয় সরকার একাধিকবার তাদের সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ্য ভাতা বৃদ্ধি করেছেন সেই অনুযায়ী রাজ্য সরকার DA বাড়াননি। অনেক মিটিং মিছিল আলোচনার পর কিছুদিন আগে মাত্র ৪ শতাংশ DA বাড়িয়েছিলেন। তবে সেটা কেন্দ্রের DA থেকে অনেক কম। এই অতি সামান্য DA বৃদ্ধিতে খুশি নন সরকারি কর্মচারীরা। তারা কেন্দ্রীয় হারের সমান DA চান।

Advertisement

Mamata Banerjee Told About DA Hike

কিন্ত মুখ্যমন্ত্রী সেই হারে Dearness Allowance বাড়াতে পারবেন না বলেই দিয়েছেন স্পষ্ট। সামনেই লোকসভা ভোট। এদিকে সরকারি কর্মচারীদের নতুন করে আন্দোলনের হুশিয়ারি দেওয়ার কথা উঠতেই শুক্রবার থেকেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অনশন শুরু করেছেন। শুক্রবার থেকে রেড রোডে রাজ্যের প্রাপ্য বকেয়ার দাবি জানিয়ে ধরনা কর্মসূচির আয়োজন করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

Advertisement

ধরনা কর্মসূচির শুরুর দিনেই হাজির ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এই সভায় এসে মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের জন্য কী কী সুযোগ সুবিধা দিচ্ছেন তার তালিকা প্রদর্শন করেন। সেই তালিকায় তিনি এই কথাও জানান পশ্চিমবঙ্গ একমাত্র রাজ্য যেখানে পেনশন দেওয়া হয়ে থাকে। রাজ্য সরকারের কর্মচারীরা সরকারি স্বাস্থ্য স্কিমে বিনামূল্যে চিকিৎসা পান। তিনি বরাবরই সরকারি কর্মচারীদের সুবিধার কথা ভাবেন এবং আগামী দিনেও ভাববেন।

তবে কেন্দ্রীয় হারে Dearness Allowance তথা মহার্ঘ্য ভাতা বাড়ানো সম্ভব নয় সেটাও স্পষ্ট করেন। শুক্রবারের ধরনা মঞ্চ থেকে বিরোধীদের কথার উত্তরে এমনই বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে সরকারি কর্মচারী সংগঠনের সদস্যরা থেমে থাকার নয়, তারাও DA বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে ইতিমধ্যে সেনাকে চিঠি দিয়েছেন। অন্যদিকে, এই ৪ শতাংশ DA বৃদ্ধি নিয়ে কোনরকম খুশি নন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা।

রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বড় পদক্ষেপ! বকেয়া DA নিয়ে কী বক্তব্য এই আন্দোলনকারীদের?

তাদের দাবি কেন্দ্রীয় হারে মহার্ঘ্যভাতা দিতে হবে । যেখানে কেন্দ্র ছাড়াও অন্যান্য একাধিক রাজ্যেও ৪৬ শতাংশ হারে Dearness Allowance তথা মহার্ঘ্য ভাতাদেওয়া হয় তবে এই রাজ্যে এখনও ১০ শতাংশ হারে DA দেওয়া হয়। যেটা খুবই কম। যদিও মুখ্যমন্ত্রী ও তার নিজের বক্তব্য এই একমত। তিনি তার মত বদলাতে নারাজ। ধর্না মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর এই কড়া ভাবে ডিএ বৃদ্ধি না বলাতে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের সদস্যরা সেনাকে চিঠি দিয়ে বসে থাকবে না।

Bank Holidays বা ব্যাংক ছুটি

তারা আরও বড়ো আন্দোলনের ডাক দেবেন। সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের তরফে ভাস্কর ঘোষ জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী কিছুতেই আমাদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন না। তিনি পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। সেই কারণে ওনার ধরনা মঞ্চের উল্টোদিকে আমরা অবস্থান বিক্ষোভ করতে চাইছি। সেনার অনুমতি পেলেই আমরা অনশনে বসবো। পুলিশ কী করবে আমরা জানি না। বোঝাই যাচ্ছে, ডিএ নিয়ে আন্দোলন, বিক্ষোভ আরোও জোরালো হতে চলেছে।

অবশেষে সরকারী কর্মীদের 18 মাসের বকেয়া ডিএ দিতে রাজি। মামলা ও অনশনের মাঝেই কিছুটা দাবিপূরণ।

অনশন বিক্ষোভ হলে সেটা কোনদিকে মোড় নেবে সেটাই দেখার বিষয়। সরকারি কর্মচারীরা তাদের ন্যায্য দাবি না নিয়ে পথ ছাড়বেনা অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী ও নিজের বক্তব্য অনড় থাকবেন। আদৌ কি এই আন্দোলনের পর সরকারি কর্মচারীরা তাদের দাবি আদায় করতে পারবেন নাকি এই আন্দোলন আরও সুদূরপ্রসারী হতে চলেছে।
Written by Shampa Debnath.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button