Lokprasar Prakalpa – দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর চালু হল রাজ্য সরকারের জনপ্রিয় এই প্রকল্প, আবেদন করলেই দেওয়া হবে প্রতি মাসে 1000 টাকা।

Lokprasar Prakalpa – কীভাবে আবেদন করবেন, জানুন বিস্তারিত।

সরকার থেকে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে প্রান্তিক মানুষদের জন্য নানা রকমের প্রকল্প (Lokprasar Prakalpa) ব্যাবস্থা চালু করেছে। এই সমস্ত প্রকল্প সমাজ কল্যাণ এর কাজে অনেক সুবিধা এনে দিয়েছে। লক্ষ্মী ভান্ডার থেকে শুরু করে বিধবা ভাতা, বার্ধক্য ভাতা শুরু হওয়ার পর সাধারণ মানুষ অনেক উপকৃত হয়েছেন। এমনই এক প্রকল্প শুরু হয়েও বন্ধ হয়ে গেছিলো সেটি আবার পুনরায় শুরু করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন সরকার।।

Advertisement

আর এই প্রকল্পের নাম ‘লোক প্রসার প্রকল্প ‘ (Lokprasar Prakalpa). পুরনো দিনের কথা স্বরন করলেই লোক শিল্পের কথা মনে পড়ে। কারণ পুরনো দিনের সময় একটা বড়ো অংশ নিয়ে ছিল এই লোক শিল্প। সেই সময়ে পাড়ায় পাড়ায় জলসা করে লোক গান হতো। ভিড় জমত অনেক মানুষের। আর সেই মানুষের অর্থেই বা পাড়ার কমিটি গুলোর দেওয়া অর্থেই লোক শিল্পীদের পেট চলত। লোক শিল্প একটা ঐতিহ্য ছিল সেই সময়ে। সেই লোক সঙ্গীত হারিয়ে যাওয়া মানে বাংলার সংস্কৃতি বিলীন হয়ে যাওয়া।

Advertisement

একলাফে সুদের হার বাড়িয়ে 10% করলো পোস্ট অফিস, খুশি আমজনতা।

কিন্ত আজকাল সেই লোক সঙ্গীত শোনা যায়না বললেই চলে। বর্তমান সময়ে সেই সব লোক শিল্পীরা কোথাও যেন হারিয়ে গেছে। তারফলে তাদের জীবন চালানো অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে যেহেতু রুজি রোজগার নেই। তারা অনেকবার সরকারের কাছে আবেদন করেছেন তাদের জন্য সরকার থেকে কিছু অনুদান দেওয়া হোক নয়তো তাদের জীবন চালানো কঠিন হয়ে পড়ছে।

সরকার তাদের কথা ভেবে ২০১৪ সালে ঠিক করেছিলেন একটা প্রকল্প (Lokprasar Prakalpa) ব্যাবস্থার মাধ্যমে তাদের ১০০০ টাকা করে প্রতি মাসে দেওয়া হবে। ৩ বছর সেই প্রকল্প ঠিক ভাবে চলার পর তাদের জীবন অনেকটাই সুরক্ষিত ছিল। কিন্ত ২০১৭ সালে কোন এক অজ্ঞাত কারণ বশত সেই প্রকল্প বন্ধ হয়ে যায়। আবার লোক শিল্পীরা সমস্যায় পড়ে। ২০১৭ সালে এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করণের পর আর কারও নাম নথিভুক্ত করা হয়নি।

ফলে এই লোক শিল্পীদের রোজকার একপ্রকার বন্ধ হয়ে যায়। যেহেতু বর্তমানে আধুনিক বিনোদনের যুগে সেই সময়কার লোক গান হারিয়ে যাচ্ছে একপ্রকার। তারফলে ভাদু, টুসু, ভাটিয়ালি, বাউল, কীর্তন একপ্রকার আর শোনাই যায়না বললেই চলে। ৫ বছর পর ২০২৩ সালে সরকার থেকে পুনরায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় লোক প্রসার প্রকল্প পুনরায় শুরু করা হবে।

সরকার থেকে সেই বন্ধ হয়ে যাওয়া প্রকল্পকেই (Lokprasar Prakalpa) পুনরুজ্জীবিত করার চেষ্টা করছেন। সরকার থেকে সেই সব প্রান্তিক শ্রেণীর মানুষদের দুঃখ দুর্দশা থেকে স্বস্তি দেওয়ার জন্য এই প্রকল্পকে নতুন করে আনা হচ্ছে। যাদের নাম এই প্রকল্পে নতিভুক্ত থাকবে একমাত্র তারাই মাসে ১০০০ টাকা করে অনুদান পাবেন।

কিভাবে আবেদন করবেনঃ
সরকার থেকে নবান্নে ঘোষনা করা হয় যে প্রত্যেক জেলার জেলাশাসকের কাছে নির্দেশ যাবে। নির্দেশে বলা হবে তারা যেন প্রত্যেক জেলায় একটি অডিশনের (Lokprasar Prakalpa) বন্দোবস্ত করা হবে এবং সেই অডিশনের প্রচার যেন করা হয় ভালো ভাবে। এই পুরো ব্যাবস্থার মুখ্য তত্বাবধানে থাকবেন রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রক। রাজ্যের সেখানে বাংলার শিল্পীরা এসে তাদের যোগ্যতার পরিচয় দেবেন। যোগ্যতায় প্রমাণ পেলেই এই প্রকল্পে তাদের নাম নথিভুক্ত করা হবে।

আর্থিকভাবে দুর্বল পড়ুয়াদের জন্য দারুন ঘোষণা। উপকার হবে কোটি কোটি পড়ুয়ার।

তার পর থেকেই প্রতি মাসে ১০০০ টাকা করে পাবেন লোক শিল্পীরা। তবে লোক শিল্পীদের বয়স ৬০ বছর হলেই তবে ১০০০ টাকা করে দেওয়া হবে। টাকার সাথেও সরকারি পরিচয় পত্র দেওয়া হবে। এই প্রকল্পের ঘোষণার পর বাংলার হারিয়ে যাওয়া লোক শিল্পীদের মনে আবারও শান্তি ফিরে আসবে ও তারা নতুন করে বাঁচার রসদ খুঁজে পাবেন বলে আশা করা যায়। আর বাংলার মানুষও হারিয়ে যাওয়া লোক সঙ্গীত শুনে মনপ্রাণ জুড়াবে।
Written by Shampa Debnath

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button