ATM থেকে টাকা তোলা এখন অতীত। এবার চালু হচ্ছে BTM মেশিন। কি কি সুবিধা পাবেন, জেনে নিন।

ATM নাকি BTM কিসে পাবেন বেশি সুবিধা, জানুন বিস্তারিত।

আমরা সবাই ব্যাংকে টাকা ইনভেস্ট করি ভবিষ্যতের সুরক্ষার জন্য। আর কোনো প্রয়োজনে সেই টাকা খুব সহজেই তুলতে পারি ATM কার্ড ব্যাবহার করে ATM থেকে। ব্যাংক থেকে পাসবুকের মাধ্যমে টাকা তোলা অনেকটাই সময় সাপেক্ষ। এছাড়া ব্যাংক সবসময় খোলা থাকেনা। কিন্ত ATM কার্ড দিয়ে টাকা তুললে যে কোনো সময় আপনি খুব সহজেই টাকা পেয়ে যাচ্ছেন। এই জন্য প্রত্যেকে এই এ টি এম কেই প্রথম ভরসা করে।

Advertisement

কিন্ত এখন ATM এর অনুরূপ BTM মেশিন চালু হতে যাচ্ছে। কি এই নাম প্রথম শুনলেন, ভাবছেন ব্যাপারটি কি, আসুন নিচে আলোচনা করা হলো। বিটিএম পুরো অর্থ হলো বিটকয়েন টেলার মেশিন। এই মেশিনের মাধ্যমে কোনও দেশের মুদ্রা লেনদেন করা যাবে না। শুধু বিটকয়েন লেনদেন করা যাবে।

Advertisement

পুজোর ছুটি আরও 2 দিন বেড়ে গেল। কোন কোন দিন ছুটি থাকবে, নতুন ছুটির তালিকা দেখে নিন।

বিটিএম বিটকয়েন এটিএম নামেও পরিচিত। বিটকয়েন টেলার মেশিন হল একটি সেলফ-সার্ভিস যন্ত্র। এখানে ব্যবহারকারীরা নগদ অথবা ক্রেডিট এবং ডেবিট কার্ড ব্যবহার করে বিটকয়েন কেনাবেচা করতে পারবেন। আমরা সাধারণত যে এটিএম দেখে থাকি সেখান থেকে সাধারণত নগদ টাকা বেরিয়ে আসে। তবে বিটকয়েন এটিএম এর মাধ্যমে ক্রিপ্টোকারেন্সি লেনদেন করা সম্ভব।

বিটকয়েন এটিএম-এমন একটি আধুনিক ATM যেখান থেকে টাকা তোলা খুবই সহজ । যদিও এই যন্ত্রের কাজের ভিত্তিতে কিংবা পরিষেবা প্রদানকারী এবং নির্দিষ্ট মডেলের উপর ভিত্তি করে এই যন্ত্রের কাজের ধরন ভিন্ন হতে পারে।
যেমন – অথেন্টিকেশন।
মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে অথবা কিউআর কোড স্ক্যান করে ব্যবহারকারীরা অথেন্টিকেট করতে পারবেন।

ত্রঞ্জিক্ষণকতটা বিটি কয়েন কেনা বেচা হয়ে তার হিসাবপেমেন্ট:
বিটকয়েন কেনার জন্য ব্যবহারকারীকে ওই যন্ত্রের মধ্যে নগদ টাকা দিতে হবে। কিংবা পেমেন্টের জন্য তিনি ক্রেডিট অথবা ডেবিট কার্ডও ব্যবহার করতে পারেন। আর বিটকয়েন বিক্রি করার ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীকে যন্ত্রের মধ্যে ক্রিপ্টোকারেন্সি পাঠানোর জন্য নিজের মোবাইল ওয়ালেট থেকে একটি কিউআর কোড স্ক্যান করতে হবে।

বিটকয়েনের কেনার পর আপনি একটি রশিদ কপি পেয়ে যাবেন। এই BTM কে নিয়ে বহু মানুষের সমালোচনা এত পরিমাণ হয়েছে যে এর ওপর কঠোর আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। মাত্র এক বছরের মধ্যে বিটকয়েনের কয়েন প্রতি মূল্য ১৩ লক্ষ টাকা থেকে গত শুক্রবার (২০ অক্টোবর) বেড়ে হয়েছে কয়েন প্রতি ২৪ লক্ষ টাকা। অর্থাৎ এর গুরুত্ত দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে বোঝা যাচ্ছে। বিটকয়েনের মূল্য দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে আগের তুলনায়। যদিও BTM এর ওপর মানুষের প্রভাব কিন্তু খুব কম। মানুষ একে পছন্দ না করায় একে একে বন্ধের পথে ।

বিশ্ব জুড়ে m বিটকয়েন এটিএম ইনস্টলেশনের কাজ অনেকটাই কম হয়েছে গত দুই বছরে। সূত্র অনুযায়ী, গত বছরের এটিএম ইনস্টলেশনের সংখ্যা নেমে ৭০০০-এ গিয়ে ঠেকেছে। অর্থাৎ ১৭ শতাংশ কমেছে। এই সময়ে মোট ৩২৫০০টি এটিএম ইনস্টল করা হয়েছে।

বিটকয়েনের সুনাম নষ্ট হচ্ছে কিছু সাইট এটাকে অপরাধমূলক কাজের সাথে যুক্ত করছে। স্ক্যামাররা ই-কমার্স সাইটে পণ্য বিক্রয়ের জন্য এটি ব্যবহার করছে এবং এগুলো যারা কিনছে তাদের নির্দিষ্ট ধরনের কয়েনে অর্থ জমা করার নির্দেশ দেওয়ার পরই সেই অর্থ BTM থেকে উধাও হয়ে যাচ্ছে। ফলে দিনদিন BTM এর প্রচলন বন্ধ হচ্ছে।
Written by Shampa Debnath

বহু প্রতীক্ষার পর রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ শুরু হয়ে গেল। মুখ্যমন্ত্রীর ছাড়পত্র।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button