রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া DA নিয়ে বড় আপডেট, কি জানালো সুপ্রিম কোর্ট?

পশ্চিমবঙ্গ সরকার না চাইলেও এবার রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের DA দিতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা নিয়ে মামলা এখন নবান্ন, কলকাতা হাইকোর্ট হয়ে দিল্লীতে সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে পৌঁছেছে। ন্যায়াধীশ হৃষীকেশ রায় ও ন্যায়াধীশ দীপঙ্কর দত্তের এজলাসে এই মামলার শুনানি হতে চলেছে। এই শুনানিতে অংশ গ্রহণ করার জন্য দেশের রাজধানীতে গিয়ে উপস্থিত হয়েছেন রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের উকিলরা ও Confederartion Of State Government Employees এর সদস্যরা।

Advertisement

কনফেডারেশান এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে বিগত ৫ ই ডিসেম্বরের সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুসারে আমরা নিজেদের বক্তব্য লিখিত আকারে জমা দিয়েছি তার সঙ্গে এর এক কপি রাজ্য সরকারকে দেওয়া হয়েছে Dearness Allowence সম্বন্ধে। এবারের শুনানির জন্য আমরা প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন সরকারী কর্মীদের সকলে।

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গ সরকার DA নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে অস্বস্তিতে, কর্মীরা 90 দিনের মধ্যে ফল পাচ্ছেনা

DA র বকেয়া বলে রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে যেই হিসাব পেশ করেছে তাতেই প্রমান হয়ে যাচ্ছে সকল কিছু। এই বিশাল পরিমান টাকার অঙ্ক দেখিয়ে রাজ্য সরকারের বক্তব্য কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা দিলে এই বিপুল পরিমান অর্থ রাজ্য সরকারের কোষাগার থেকে মেটাতে হবে। এর ফলে ভবিষ্যতে রাজ্যেকে এক আর্থিক চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হবে।

রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের বক্তব্য প্রতিমাসে ডি এ দিয়ে দিলে এরকম পরিস্থিতি হত না। শুধু একটা নিয়ম মেনে বকেয়া দিয়ে দিলে এই সব হত না। অনেক বিশেষজ্ঞ মহলের মত অনুসারে সরকারের পক্ষ থেকে নানা জায়গায় দান ধ্যান করে পয়সা নষ্ট করা হয়। কিন্তু নিজেদের কর্মীদের বকেয়া মেটানোর সময় তাদের আর্থিক অনটনের কথা মনে পরে। Ropa Rules 2019 এ স্পষ্ট করে উল্লেখ করা আছে, DA হচ্ছে সকল শ্রেণির সরকারী কর্মচারীদের মৌলিক অধিকার সেটা সরকারকে দিতেই হবে।

রোপার নিয়ম অনুসারে ভারতবর্ষের মাইনে বৃদ্ধির সূচক মেনে রাজ্য সরকারকে Dearness Allowence দিতে হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ম মেনে বছরে দুই বার করে মহার্ঘ ভাতা দিতে হবে। বিগত কয়েক বছর ধরে চলছে এই মামলা। এক হিন্দি সিনেমার প্রচলিত ডায়লগ আছে – “তারিখ পে তারিখ”। মানে একের পর তারিখ পাওয়া যাচ্ছে এই শুনানির জন্য, বর্তমানে রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের পরিস্থিতি ঠিক অনেকটা এরকমই। তবুও তারা হার না মেনে নিজেদের ন্যায্য পাওনার জন্য লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।

আর এই লড়াইয়ের ফলে ২০ শে মে ২০২২ কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে ৩ মাসের মধ্যে সকল বকেয়া DA মিটিয়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল রাজ্য সরকারকে। এই নির্দেশ না মেনে সরকারের পক্ষ থেকে রিভিউ পিটিশন দাখিল করা হয়। কিন্তু সেই চেষ্টাও ২২ শে সেপ্টেম্বর ২০২২ খারিজ করে দেয় আদালত ও নিজেদের পূর্বের রায় বহাল রাখে তারা।

আর এর পরে এই মামলা এখন দেশের সর্বচ্চো আদালতের দোরগোড়ায়। পূর্বে সকল স্থানে রাজ্য সরকারী কর্মচারীরা জিতেছেন তাই তাদের আশা এবারের জয়টাও তাদেরই হতে চলেছে। এই কথা মাথায় রেখে এক বুক ভরা আত্মবিশ্বাস নিয়ে সকলে এখন দিল্লীতে। এই প্রসঙ্গে আপনাদের মত নিচে কমেন্ট বক্সে জানাবেন। পছন্দ হলে শেয়ার ও সাবসক্রাইব করুন সঙ্গে থাকুন।

DA মামলার পরবর্তী শুনানি আরো সামনে এগিয়ে এলো, বকেয়া কবে পাচ্ছেন রাজ্য সরকারি কর্মীরা?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button