APY Scheme – চাকরি না করেও মাসে মাসে পেনশন পাবেন কেন্দ্র সরকারের জনপ্রিয় প্রকল্প

APY Scheme – চাকরি না করেও মাসে মাসে পেনশন পাবেন কেন্দ্র সরকারের জনপ্রিয় প্রকল্পে আবেদন করুন। প্রত্যেকটি ব্যক্তি নিজের উপার্জনের থেকে কিছুটা অংশ ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় করেন তার কারণ বয়সকালে একজন ব্যক্তির কর্ম ক্ষমতা থাকে না। তাই ঘরে বসে বসে যাতে জমানো টাকা খরচ করতে পারে তার জন্য আগে থেকেই টাকা জমাতে থাকেন। এছাড়াও যারা সরকারি কর্মী আছেন তাদের অবসর গ্রহণের পর থেকে প্রতিমাসে নির্দিষ্ট অংকের পেনশন পেয়ে থাকেন।

Advertisement

APY Scheme provides monthly pension

কেন্দ্রীয় সরকার তেমনি অসংগঠিত কর্মী বা ক্ষুদ্র ব্যাবসায়ীদের জন্য পেনশনের ব্যাবস্থা করেছেন। এই প্রকল্পের নাম হলো অটল পেনশন যোজনা। যেটি ২০১৫ সালে প্রথম শুরু হয়েছিল। সাধারণ মানুষ যারা ঠিকাদার, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী তাদের বয়সকালে কোনো উপার্জন করার ক্ষমতা থাকেনা। অন্যদিকে তাদের পেনশন পাবার কোনো রাস্তা নেই। বয়সকালে তাদের জীবন যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে চলতে পারে তারজন্য নরেন্দ্র মোদী এই পেনশন স্কিমের ব্যাবস্থা করেন। এই স্কিমে, বিনিয়োগকারী বিনিয়োগের ম্যাচুরিটির পরে প্রতি মাসে পেনশনের ব্যপক সুবিধা পাবেন।

Advertisement

বয়স সীমা, কত টাকা পাবেন, আবেদন প্রক্রিয়া এগুলো জেনে নিন বিস্তারিত :-

আপনি ১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে আপনি এই স্কিমে বিনিয়োগ করলে ৬০ বছর পর থেকে প্রতিমাসে নির্দিষ্ট টাকা পেনশন পেতে থাকবেন। আপনি যে পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করবেন তার উপর ভিত্তি করে সরকার স্কিমটি ম্যাচিয়র হওয়ার পরে বিনিয়োগকারীকে প্রতি মাসে 5,000 টাকা পর্যন্ত পেনশন রিটার্ন দেয়।
এই প্রকল্পে একসাথে স্বামী স্ত্রী বিনিয়োগ করতে পারেন। তাহলে প্রতি মাসে আপনি 10,000 টাকা করে পেনশন পেতে পারবেন।

How to get monthly pension without job

আপনি যদি এই স্কিমের অধীনে প্রতি মাসে 210 টাকা বিনিয়োগ করেন, তাহলে 60 বছর বয়সের পরে প্রতি মাসে 5,000 টাকা পেনশন পাবেন (APY Scheme).

Benefits of APY Scheme :-

১) এই প্রকল্পের জন্য আবেদনকারী ব্যক্তির সর্বনিম্ন বয়স হতে হবে ১৮ বছর। সর্বোচ্চ বয়স হবে ৪০ বছর। আপনার বয়স যদি ৪০ বছরের বেশি হয় তাহলে আপনি এই প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে পারবেন না।
২)আবেদনকারীর একটি ভ্যালিড ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে এবং নথিভুক্তির সময় আধার নম্বর এবং ফোন নম্বর দিতে হবে। আপনি সহজেই আপনার একাউন্ট সম্পর্কে সমস্ত তথ্য পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন: গরমের তীব্রতার জন্যও আরও বাড়ছে ছুটি! কতদিন বন্ধ থাকবে স্কুল, কলেজ।

৩)যে সমস্ত ব্যক্তি সরকারি জব করেননা তাদের পেনশন পাওয়ার জন্য এটি একটি উল্লেখযোগ্য প্রকল্প।
৪) যারা আয়কর দেন তারা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন না।
৫) পোস্ট অফিস বা ব্যাঙ্ক, যে কোনও একটি জায়গায় এই অটল পেনশন যোজনায় বিনিয়োগ করা যায়। সেখানে সেভিংস অ্যাকাউন্ট থাকলেই সেখান থেকে এই প্রকল্পে টাকা জমা দেওয়া যাবে।

৬) দেশের বাইরে থাকে এমন ভারতীয় এই সুবিধা পাবেন না।
৭) এই প্রকল্পের একটি গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা হল এই প্রকল্পের বিনিয়োগ চলাকালীন যদি গ্রাহকের মৃত্যু হয় তাহলে তার সমস্ত টাকা নমিনিকে দেওয়া হবে (APY Scheme).
৮) স্বামী স্ত্রী দুজনেই যদি এই প্রকল্পে আবেদন করেন তাহলে ৬০ বছর পর দুজনের সম্মিলিত ভাবে ৫০০০ করে মোট ১০ হাজার টাকা করে পেনশন পাবেন।

How to apply for APY scheme :-

১) আপনি ব্যাঙ্কে গিয়ে অনলাইন বা অফলাইনে এই স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারেন (APY Scheme)।
২) অনলাইনে আবেদন করতে, আপনাকে অটল পেনশন প্রকল্পের পোর্টালে যেতে হবে এবং ফর্মটি ডাউনলোড করতে হবে।

৩) এবার ফর্মটি পূরণ করার পরে, আপনাকে ব্যাঙ্কে গিয়ে জমা করতে হবে।
৪) ফর্মের পাশাপাশি, আপনাকে আধার কার্ডের ফটোকপিও জমা দিতে হবে।
৫) এছাড়াও আপনার মোবাইল নম্বরটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং আধার কার্ডের সঙ্গে লিঙ্ক করতে হবে।

বেসরকারি সংস্থা ও অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মীরা সর্বদাই চিন্তা করে থাকেন বয়সকালে তাদের সংসার কী করে চলবে। সেই সমস্ত ব্যক্তিদের সমস্যা দূর করার জন্যই অন্যতম প্রকল্প হল অটল পেনশন যোজনা।
আপনিও যদি এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে ইচ্ছুক হন উপরিউক্ত শর্তগুলো মেনে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করুন। সরকারি এমন আরও প্রকল্প সমন্ধে জানতে এই পেজটি নিয়মিত ফলো করে পাশে থাকুন।
Written by Shampa Debnath.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button