Post Office Time Deposit – পোস্ট অফিসের নতুন এই স্কিমে বিনিয়োগ করুন আর পেয়ে যান দ্বিগুণ সুদ ও লাভজনক রিটার্ন।

বর্তমানে চারিদিকে বিভিন্ন নামকরা ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান রয়েছে তবুও অনেক ব্যক্তি এখনোও পোস্ট অফিসের (Post Office Time Deposit) প্রতি ভরসা করে। পোস্ট অফিস অনেক পুরোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান যেখানে খুবই নির্ভরতা ও বিশ্বাসের ওপর টাকা বিনিয়োগ করা যায়। পোস্ট অফিস বিভিন্ন লাভজনক স্কিম চালু করেছে যেখানে আপনি বিনিয়োগ করে দ্বিগুণ রিটার্ন পেয়ে যাবেন। নিরাপদ বিনিয়োগ মানে পোস্ট অফিস।

Advertisement

Post Office Time Deposit Scheme Interest Rate

লোকসানের ভয় নেই। নিশ্চিত রিটার্ন। পোস্ট অফিসে একাধিক ক্ষুদ্র সঞ্চয় স্কিম রয়েছে। তবে পোস্ট অফিসের টিডি বা টাইম ডিপোজিট স্কিমে বা Post Office Time Deposit এসবিআইয়ের থেকে বেশি সুদ পাওয়া যায়। ফলে লাভজনক যে বলাইবাহুল্য। এই স্কিমে গ্রাহক ১ বছর, ২ বছর, ৩ বছর কিংবা ৫ বছর মেয়াদে বিনিয়োগ করতে পারেন।

Advertisement

এটি পোস্ট অফিসের সবচেয়ে সুপরিচিত এবং জনপ্রিয় স্কিম। অনেকে একে ন্যাশনাল সেভিংস টাইম ডিপোজিটও বলেন। দেশের গ্রামীণ এবং প্রত্যন্ত অঞ্চলে যেখানে ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান অতটা নেই। সেখানে পোস্ট অফিসের টিডি বা টাইম ডিপোজিট স্কিমে বা Post Office Time Deposit এই স্কিম সর্বাধিক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

টাইম ডিপোজিট স্কিমে সুদের হার

অর্থ মন্ত্রক প্রত্যেক অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকের শুরুতে সুদের হার পর্যালোচনা করে। সুদের হার সরকারি সিকিউরিটিজের ফলনের উপর ভিত্তি করে স্থির করা হয়। এখনোও অবধি পোস্ট অফিস টাইম ডিপোজিট স্কিমে ১ বছর, ২ বছর, ৩ বছর এবং ৫ বছরের সুদের হার যথাক্রমে ৬.৯ শতাংশ, ৭ শতাংশ, ৭ শতাংশ এবং ৭.৫ শতাংশ।

এখন প্রশ্ন হল, পোস্ট অফিসের টিডি বা টাইম ডিপোজিট স্কিমে বা Post Office Time Deposit এ যদি কেউ ৫ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেন তাহলে তিনি কত টাকা পাবেন? অর্থাৎ যদি কেউ ৫ লাখ টাকা পাঁচ বছরের জন্য বিনিয়োগ করেন, তাহলে ৭.৫ শতাংশ হারে সুদ মিলবে। সেক্ষেত্রে পাঁচ বছরে অর্জিত সুদ হবে ২,২৪,৯৭৪ টাকা।

চাকরি না করেও প্রতিমাসে 20,500 টাকা পেনশন পান পোস্ট অফিসের এই স্কিমে বিনিয়োগ করে।

ম্যাচিউরিটির পর হাতে আসবে ৭,২৪,৯৭৪ টাকা। এর জন্য ৭.৫ শতাংশ সুদের হারে টাকা দ্বিগুণ হতে সময় লাগবে ৯ বছর ৬ মাস অর্থাৎ ১১৪ মাস। যে কোনও ভারতীয় নাগরিক এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে পারেন। পোস্ট অফিসের টিডি বা টাইম ডিপোজিট স্কিমে বা Post Office Time Deposit এ সিঙ্গল অ্যাকাউন্টের পাশাপাশি জয়েন্ট অ্যাকাউন্টও খোলা যায়। ১০ বছরের বেশি বয়সী কোনও নাবালকের নামেও অভিভাবকরা অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।

KVP Scheme বা কিষাণ বিকাশ পত্র স্কিম

বাড়তি সুবিধা

পোস্ট অফিসের টিডি বা টাইম ডিপোজিট স্কিমে বা Post Office Time Deposit এ আয়কর আইন ১৯৬১-এর ধারা ৮০ সি-র অধীনে করছাড় পাওয়া যায়। অ্যাকাউন্ট খোলার সময় অ্যাকাউন্ট হোল্ডার নমিনিও বাছতে পারেন। তবে অকাল প্রত্যাহার করলে জরিমানা দিতে হবে।

মাসিক আয় কম হলেও ধনবান হওয়া সম্ভব। এই 5 উপায়ে টাকা বিনিয়োগ করুন।

তাই আপনিও যদি বিনিয়োগ করে দ্বিগুণ লাভজনক রিটার্ন পেতে চান পোস্ট অফিসের এই টাইম ডিপোজিট স্কিমে বিনিয়োগ করুন। আর অধিক লাভ করুন। বর্তমানে ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলোর চেয়ে অনেক বেশি লাভজনক স্কিম এই পোস্ট অফিসের টিডি বা টাইম ডিপোজিট স্কিমে বা Post Office Time Deposit. তাই কোনো দ্বিধা না রেখে নিশ্চিন্তে বিনিয়োগ করুন আর পেয়ে জন দুর্দান্ত রিটার্ন।
Written by Shampa Debnath.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button