বাড়ি বসে মোটা টাকা রোজগার করার সুযোগ দিচ্ছে TATA, নিজের পায়ে দাঁড়ানোর সুবর্ণ সুযোগ।

TATA র পক্ষ থেকে দেশের নাগরিকদের জন্য বাড়ি বসে রোজগারের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। এই সুযোগকে কীভাবে কাজে লাগাবেন জেনে নিন। বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে দেশে কর্মসংস্থানের পরিস্থিতি খুব একটা ভাল বলা চলে না। এক সরকারী পরিসংখ্যান অনুসারে আমাদের দেশে ৫ কোটি ৩০ লক্ষের বেশি জনসংখ্যা কর্মহীন হয়ে বসে আছে। করোনা অতিমারির পর থেকে এই সঙ্কট আরও তীব্র হয়েছে।

Advertisement

TATA র এই চাকরিতে যোগ দেবেন কী করে দেখেনিন।

এই বিপুল জনসংখ্যা কে কাজের সুযোগ দিতে নাজেহাল হচ্ছে রাজ্য সহ কেন্দ্রীয় সরকার সকলে। এই অবস্থা থেকে দেশবাসীকে উদ্ধার করতে এগিয়ে এল TATA. আজকের এই আলোচনায় আমরা সেই সম্পর্কে জেনে নেব। আজ থেকে ১৫৪ বছর আগে ১৮৬৮ সালে জামসেদজি টাটা মাত্র ২১,০০০ টাকা মূলধন নিয়ে এই কোম্পানি শুরু করেছিলেন।

তখনকার TATA এখন দেশবাসীর কাছে TATA Group নামে পরিচিত। বর্তমানে সারা দেশে প্রায় ৩০ টির কাছাকাছি কোম্পানি টাটার অধীনে রয়েছে। দেশের সকল মুশকিল পরিস্থিতিতে সাহায্যের হাত বারিয়ে দিয়েছে টাটা। বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে মুল্যবান ১০০ টি কোম্পানির মধ্যে টাটা ৭৭ নম্বরে রয়েছে। জেনে রাখা ভাল এই লিস্টে আর কোন ভারতীয় কোম্পানি নেই।

Bandhan Bank এ চাকরির সুযোগ বেতন শুরু 15 হাজার থেকে, সময় খুব কম।

TATA গ্রুপের মধ্যে অন্যতম কিছু সহায়ক কোম্পানি হল – টাটা মোটর, টাটা পাওয়ার, এয়ার ইন্ডিয়া, টাইটান, তাজ হোটেল, ক্রমা ইত্যাদি। এই সকল কোম্পানি মিলিয়ে মোট ৯ লক্ষ ৩৫ হাজার লোক কাজ করছেন। আমাদের দেশের একটা বিশাল জনতা টাটার কাছ থেকে কর্মসংস্থান পেয়েছে। TATA Power এর পক্ষ থেকে সকল নাগরিককে বাড়ি বসে রোজগার করার সুযোগ করে দিতে চলেছে। জেনে নিন বিস্তারিত ভাবে।

TATA Power এর স্থাপনা ১৯১৫ সালে করা হয়েছিল টাটা গ্রুপের এক সহকারী কোম্পানি হিসাবে। এই কোম্পানি সাধারণত মহারাষ্ট্রের রাজধানী মুম্বাই কেন্দ্রীত এক কোম্পানি। এর মুল কাজ মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন প্রান্তে বিদ্যুৎ সংযোগ পাঠানো। শেয়ার মার্কেট বিশেষজ্ঞ দের মত অনুসারে টাটা পাওয়ার বিগত কিছু সময় ধরে খুব ভাল রিটার্ন দিচ্ছে তাদের বিনিয়োগ কারীদের।

TATA Power এর শেয়ারের দাম ঐতিহাসিক পর্যায়ে পৌঁছিয়ে ছিল বিগত সপ্তাহে এর মূল্য এক দিনে ২২৩ টাকা পর্যন্ত পৌঁছে গেছিল। এই দেখে সকলের আশা আগত ভবিষ্যতে এই সাফল্য কায়েম থাকবে এবং বিনিয়োগকারীরা লাভাবান হবে। BSE – Bombay Stock Exchange এর তরফে খবর অনুসারে SENSEX – Stock Exchange Sensitive Index অনুসারে এই কোম্পানির স্টকের দাম ১.৫% বেড়েছে।

আজকের দিনে দাঁড়িয়ে এই কোম্পানির মার্কেট ক্যাপিটাল ৭১,০৬৪ হাজার কোটি টাকায় পৌঁছেছে। ২০২২ সালের দ্বিতীয় আর্থিক ভাগে এর লাভ প্রায় ১,০০০ কোটি টাকা হয়েছিল। এই অসাধারণ সাফল্য দেখে সকলে এখানে বিনিয়োগ করতে বলছেন।

বেসরকারি চাকরি করলেও পাবেন পেনশন! কিভাবে জেনে নিন।

কিন্তু শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগ করার ক্ষেত্রে নিজে দায়িত্ব সহকারে সব দিক বিচার করে বিনিয়োগ করবেন বলছেন বিশেষজ্ঞ দের অধিকাংশ।
এই বিষয় নিয়ে আপনাদের মত নিচে কমেন্ট বক্সে জানাবেন। পছন্দ হলে শেয়ার ও সাবসক্রাইব করুন। সঙ্গে থাকুন আরও এই ধরনের খবরের আপডেট পাওয়ার জন্য।

Related Articles

One Comment

  1. I want to know how to earn money from home . I don’t understand reading the advertisement .Please let me know the details .

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button